বুধবার, ০৬ Jul ২০২২, ১০:০৮ অপরাহ্ন

সিলেটে ২ মাসের এতিম শিশুকে হত্যা : আয়ার দোষ স্বীকার, জেলে প্রেরণ

সিলেটে ২ মাসের এতিম শিশুকে হত্যা : আয়ার দোষ স্বীকার, জেলে প্রেরণ

sylhetlive24.com/সিলেট লাইভ


নিজস্ব প্রতিবেদক

সিলেট নগরীর বাগবাড়ি ছোটমনি নিবাসে মাত্র ২ মাসের শিশু নাবিল আহমদকে নির্মমভাবে খুনের ঘটনায় অভিযুক্ত আয়া সুলতানা ফেরদৌসী সিদ্দিকা অঅদালতে দোষ স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে।

শনিবার ১৪ আগষ্ট বিকেলে তাকে সিলেটের মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক সাইফুর রহমানের আদালতে হাজির করা হলে দোষ স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেন। পরে আদালত তাকে জেল হাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

শনিবার সন্ধ্যায় এ তথ্য নিশ্চিত করেন সিলেট মহানগর পুলিশের কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম আবু ফরহাদ।

এর আগে, গত ২২ জুলাই দিবাগত রাতে সিলেটে সমাজসেবা অধিদপ্তরের অধীনস্থ নগরীর বাগবাড়িস্থ ছোটমনি নিবাসে এতিম শিশু নাবিল আহমদ কান্না করলে বিরক্ত হয়ে একপর্যায়ে শিশুকে প্রথমে বিছানায় সজোরে ছুড়ে ফেলেন আয়া সুলতানা ফেরদৌসী সিদ্দিকা এবং পরে বালিশচাপা দিয়ে শিশুর মৃত্যু নিশ্চিত করেন।

এরপর প্রমাণাদি লোপাটের চেষ্টা করেন আয়া সুলতানা ফেরদৌসী সিদ্দিকা। তাকে সহযোগিতার করেন ছোটমনি নিবাসের কয়েকজন কর্মকর্তা-কর্মচারী। ঘটনাটি ধামাচাপা দেওয়ার লক্ষ্যে ২৪ জুলাই কোতোয়ালি মডেল থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা (নম্বর-৪৫) দায়ের করা হয়। ময়নাতদন্তের পর নাবিলের মরদেহ দাফন করা হয়। নাবিল হত্যার বিষয়টি আর আড়ালেই থেকে যায়।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতে ঘাতক আয়া সুলতানা ফেরদৌসী সিদ্দিকাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে পুলিশ। পরদিন শুক্রবার তার বিরুদ্ধে কোতোয়ালি থানার এস.আই মাহবুব মন্ডল বাদি হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করেন।

এদিকে, বৃহস্পতিবার ১২ আগস্ট রাতে কোতোয়ালি থানা পরিদর্শনে আসেন সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের (এসএমপি) উপ-কমিশনার (ডিসি উত্তর) আজবাহার আলী শেখ। এসময় শিশু নাবিলের অপমৃত্যু মামলাটি তার দৃষ্টিগোচর হয়। বিষয়টি তার কাছে সন্দেহজনক মনে হওয়ায় রাত ১১টায় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম আবু ফরহাদ এবং মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মাহবুবসহ পুলিশ ফোর্স নিয়ে বাগবাড়ির ছোটমনি নিবাসে ছুটে যান ডিসি আজবাহার আলী শেখ।

সেখানের সিসি ক্যামেরায় শিশু নাবিল খুনের পুরো ঘটনাটি রেকর্ড হয়েছিলো। ক্যামেরায় ধারণ হয় সুলতানা কীভাবে নাবিলকে ছুড়ে ফেলে এবং বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করে। সিসি ফুটেজ দেখে আয়া সুলতানা ফেরদৌসী সিদ্দিকাকে তাৎক্ষণিকভাবে আটক করার নির্দেশ দেন আজবাহার আলী শেখ। পরে সুলতানাকে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ।

আরও পড়ুন : সিলেটে দুই মাসের এক এতিম শিশুকে বালিশচাপা দিয়ে হত্যা






© এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সর্বস্বত্ব SylhetLive24.Com কর্তৃক সংরক্ষিত ।

Design BY Web Nest BD
ThemesBazar-Jowfhowo