বুধবার, ০৬ Jul ২০২২, ০১:৪০ অপরাহ্ন

সিলেটে ল্যান্ড লিংকের দলিলে দুর্নীতি : প্রায় দেড় কোটি টাকা রাজস্ব ফাঁকি

সিলেটে ল্যান্ড লিংকের দলিলে দুর্নীতি : প্রায় দেড় কোটি টাকা রাজস্ব ফাঁকি

sylhetlive24.com


বিশেষ প্রতিবেদক

কুমিল্লার পারভীন আক্তার। সিলেটের সাব-রেজিস্টার। এরআগে তিনি কুমিল্লা জেলার বুড়িচংয়ে সাব রেজিস্ট্রার পদে কর্মরত ছিলেন। ২০১৯ সালের ৭ এপ্রিল তিনি সিলেট সদর সাব রেজিষ্ট্রার হিসেবে যোগদান করেন।

সিলেটে সাব-রেজিস্ট্রার অফিসে বিভিন্ন সময়ে জমির কাগজ জাল-জালিয়াতিসহ অনিয়মের অভিযোগ ওঠে। বালাম বইয়ে পাতা ছেঁড়ার ঘটনায়ও তুলকালাম ঘটে। যোগদানের পর তিনি অনেকটা ঢাকঢোল পিটিয়ে সেই সময়ে গনমাধ্যমকে বলেছিলেন, এ ধরণের একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠানে দায়িত্ব পালন অনেকটা চ্যালেঞ্জ হিসেবে বেছে নিয়েছেন। গুরুত্বপূর্ণ এই প্রতিষ্ঠানে কোনো ধরনের দুর্নীতি চলতে দিবেন না।

সেই তিনি নীরবে সিলেটের সাব-রেজিস্টার অফিসের দুর্নীতির শীর্ষে নাম লিখিয়েছেন। সিলেট লাইভ নিউজ পোর্টালে, সরকারের রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে বিক্রি ও দলিলে দুর্নীতি নিয়ে ধারাবাহিক প্রতিবেদন প্রকাশের পর বেরিয়ে আসলো থলের বিড়াল।

তিনি দুর্নীতিতে পুকুর চুরি করেন নি, তিনি করেছেন সরকারের রাজস্ব চুরি। এমন সব তথ্য এসেছে সিলেট লাইভ’র হাতে। মামলাও হয়েছে সাব-রেজিস্টার পারভীন আক্তারের বিরুদ্ধে। তদন্ত করেছে দুদক। রিপোর্টও দেয়া হয়েছে। তবে সরকারের রাজস্ব ফাঁকি দিতে এই অনিয়মের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন সাব-রেজিস্ট্রার পারভীন আক্তার।

সিলেট সদর সাব রেজিস্ট্রি অফিসের একাধিক সূত্র জানিয়েছেন, সিলেট সদর সাব রেজিস্ট্রার পারভিন আক্তারকে নিয়ন্ত্রণ করেন অফিসের নকলনবিশ নিজাম আল দিন ও দলিল লেখক ইব্রাহিম আলী খোকন। তাদের ইশারায় হোটেল রোজ ভিউ দলিলে সরকারের রাজস্ব ফাঁকি দেন সাব রেজিস্ট্রার পারভিন। নকলনবিশ নিজাম আল দীন সিলেট সদর সাব রেজিস্ট্রার পারভিন আক্তারকে শুধু নিয়ন্ত্রণও করেন বললে কম হবে, অনেক সময় সাব রেজিস্ট্রার পারভিন আক্তারকে নিজের গাড়িতে এবং রিকশা যোগে বাসায়ও দিয়ে আসেন। সাব রেজিস্ট্রার পারভিন আক্তারের ছায়ায় নিজাম আল দীন আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ হয়েছেন। গড়েছেন বাড়ি-গাড়ি। এরআগে ২০১২ সালে নিজাম আল দীন দলিলের পাতা বদলানোর অভিযোগে নকলনবিশ হতে বহিস্কারও হয়েছিলেন। সম্প্রতি নিজাম আল দীন-এর বিরুদ্ধে আইন ও বিচার বিভাগের সচিব বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছেন নকলনবিশ, দলিল লেখক ও অফিসের নিরীহ কর্মকর্তাবৃন্দ।

দলিল লেখক ইব্রাহিম আলী খোকন সেতো অনেক বড় মাপের প্রতারক। সে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ৮টি সীল-স্বাক্ষর জালিয়াতি করে সিলেটে এক প্রবাসীর নামে আমোক্তারনামা জাল করতে গিয়ে আটক হয়েছিলো সাব রেজিস্ট্রার পারভিন আক্তারের হাতে। তবে আটকের পর অদৃশ্য কারণে সিলেটের সাব-রেজিস্ট্রার তাকে পুলিশে সোপর্দ করেননি!

নিজাম আল দিন ও ইব্রাহিম আলী খোকনের কুকর্মের একাধিক কর্মযজ্ঞ এসেছে সিলেট লাইভের হাতে। পর্যায়ক্রমে তা প্রকাশ হবে।

এদিকে, সিলেটের এয়ারপোর্টের ডলিয়া এলাকায় ল্যান্ড লিংকের ১৫ একর জমি জালিয়াতির মাধ্যমে বিভিন্ন ব্যক্তিনামে দলিল সম্পাদন অভিযোগসহ ১২টি দলিলে দুর্নীতি করে সরকারের প্রায় দেড় কোটি টাকা রাজস্ব ফাঁকির অভিযোগে সিলেট সদর সাব রেজিস্ট্রার পারভিন আক্তারসহ ২২ জনের নামোল্লেখ করে মহানগর সিনিয়র স্পেশাল জজ কোর্টের ৬/২০২০ নং মামলা করেন কোম্পানির উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক মনজারুল আলম চৌধুরী শিমু। এই মামলা দুদক তদন্ত করে তাদের বিরুদ্ধে রিপোর্ট দিয়েছে। এই রিপোর্টে নিজেকে নির্দোষ বলে দাবি করলেও দুদক তা পাত্তাই দেয়নি।

সূত্রে জানা গেছে, ল্যান্ড লিংকের ১৫ একর জমির মৌজার বাড়ি রকম ভূমির শ্রেণী গড় মূল্য ৩ লাখ ৯৯ হাজার টাকার পরিবর্তন করে বিক্রিত ভূমি টিলা রকম করে গড় মূল্য ২০ হাজার টাকার করে ৯% রেজিস্ট্রি ফি ধরে রেজিস্ট্রেশন করেন। জালিয়াতির মাধ্যমে বিভিন্ন ব্যক্তিনামে দলিল সম্পাদনের ১২টি দলিলে সদর সাব রেজিস্ট্রার পারভিন আক্তারের দুর্নীতির হালখাতা যথাক্রমে দলিল নং- ১০১৭৯/১৯ সরকারি রাজস্ব ফাঁকি দিয়েছেন ২৬ লাখ ১২ হাজার ৯শ ৯৯ টাকা। দলিল নং- ১০১৮০/১৯ সরকারি রাজস্ব ফাঁকি দিয়েছেন ১৪ লাখ ৫ হাচার ১শ ৯০ টাকা। দলিল নং- ১০১৮১/১৯ সরকারি রাজস্ব ফাঁকি দিয়েছেন ১৬ লাখ ৮৩ হাজার ৯শ ২৫ টাকা। দলিল নং- ১০১৮২/১৯ সরকারি রাজস্ব ফাঁকি দিয়েছেন ১৭ লাখ ৪১ হাজার ৯শ ৯৯ টাকা। দলিল নং- ১০১৮৩/১৯ সরকারি রাজস্ব ফাঁকি দিয়েছেন ৭ লাখ ৭০ হাজার ৯শ ৯৯ টাকা। দলিল নং- ১০১৮৪/১৯ সরকারি রাজস্ব ফাঁকি দিয়েছেন ৭ লাখ ৭০ হাজার ৯শ ৯৯ টাকা। দলিল নং- ১০১৮৫/১৯ সরকারি রাজস্ব ফাঁকি দিয়েছেন ১৭ লাখ ৮১ হাজার ৯শ ৯৯ টাকা। দলিল নং- ১০১৮৬/১৯ সরকারি রাজস্ব ফাঁকি দিয়েছেন ১৮ লাখ ২৯ হাজার ৯শ ৯৯ টাকা। দলিল নং- ১০১৮৭/১৯ সরকারি রাজস্ব ফাঁকি দিয়েছেন ৭ লাখ ৭০ হাজার ৯শ ৯৯ টাকা। দলিল নং- ১০১৮৮/১৯ সরকারি রাজস্ব ফাঁকি দিয়েছেন ৭ লাখ ৭০ হাজার ৯শ ৯৯ টাকা। দলিল নং- ১০১৮৯/১৯ সরকারি রাজস্ব ফাঁকি দিয়েছেন ৭ লাখ ৭০ হাজার ৯শ ৯৯ টাকা। দলিল নং- ১০১৯০/১৯ সরকারি রাজস্ব ফাঁকি দিয়েছেন ৭ লাখ ৭০ হাজার ৯শ ৯৯ টাকা।

ল্যান্ড লিংকের ১৫ একর জমির মৌজার বাড়ি রকম ভূমির শ্রেণী গড় পরিবর্তন করে ভূমি টিলা রকম এই ১২টি দলিলে সর্বমোট ১ কোটি ২৬ লাখ ৩৯ হাজার ২শ ২৯ টাকা সরকারি রাজস্ব ফাঁকি দিয়েছেন সিলেট সদর সাব রেজিস্ট্রার পারভিন আক্তার।






© এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সর্বস্বত্ব SylhetLive24.Com কর্তৃক সংরক্ষিত ।

Design BY Web Nest BD
ThemesBazar-Jowfhowo