শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০:৩৩ অপরাহ্ন

এবার সিলেটে গরুর হাট নিয়ে মেলা বাবলুর প্রতারণার ‘নতুন ফাঁদ’

এবার সিলেটে গরুর হাট নিয়ে মেলা বাবলুর প্রতারণার ‘নতুন ফাঁদ’

sylhetlive24.com/সিলেট লাইভ
ইনসেটে লিফলেট, বায়ে বাবলুর ফাইল ছবি।


বিশেষ প্রতিবেদক

সিলেটের আলোচিত মেলা ব্যবসায়ী এমএ মঈন খান বাবলু এবার গরুর হাট নিয়ে প্রতারণার ‘নতুন ফাঁদ’ পেতেছেন। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক অনুমোদিত সিলেট সদর উপজেলার টুকেরবাজার তেমুখি পয়েন্টের শরীফ কমিউনিটি সেন্টার সংলগ্ন মাঠ তিনি ইজারা পেয়েছেন দাবি করে লিফলেট ছাপিয়েছেন। সেই লিফলেট পাঠিয়েছেন দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের কোরবানীর গরু ব্যবসায়ীদের কাছে। অথচ সিলেট সদর উপজেলা প্রশাসন থেকে এখন পর্যন্ত কোনো বাজার ইজারা দেয়নি। তাহলে কেনো মেলা বাবলু এই লিফলেট ছাপালেন এবং বিতরণ করলেন! নাকি মেলার মতো কোররানীর পশুর হাট নিয়েও প্রতারণার ‘নতুন ফাঁদ’ পেতেছেন মেলা বাবলু?

সূত্র জানায়, বাবলুর ছাপা করা এসব লিফলেট বিতরণ করা হচ্ছে দেশের বিভিন্ন স্থানের গরুর পাইকার এবং সিলেটের ক্রেতাদের কাছে। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক অনুমোদিত ও সদর উপজেলা এবং জেলা প্রশাসন কর্তৃক ইজারাপ্রাপ্ত বলে লিফলেটে উল্লেখ করেছেন তিনি।

সিলেটে আলোচিত-সমালোচিত ও বির্তকিত মেলা ব্যবসায়ী এমএ মঈন খান বাবলু। মেলার মতোও এবার তিনি প্রতারণার ফাঁদ পেতেছেন কোরবানির হাট নিয়ে।

তার লিফলেট সূত্রে জানা গেছে, আগামী ১০ জুলাই থেকে হাট শুরু করা হবে। সেই সাথে যোগাযোগের জন্য তার নিজের মোবাইল নম্বরের পাশাপাশি দেয়া হয়েছে আরো ১০ জনের নাম ও মোবাইল নম্বর।

তবে এই লিফলেট তিনি প্রচার করেননি বলে দাবি করেছেন মঈন খান বাবলু। সিলেট লাইভ‘কে তিনি বলেন, সরকারিভাবে এখনো বাজার ইজারা দেয়া হয়নি। তাই তিনি এখনও কোন বাজার ইজারা পেয়েছেন বলে লিফলেট প্রচার করেননি। তার প্রতিপক্ষ তাকে ঘায়েল করতে এসব কাজ করছে বলে দাবি করেন। তবে বৈধভাবে সরকার থেকে বাজার ইজারা দেয়া হলে তিনি নেয়ার চেষ্টা করবেন।

এদিকে- অপর একটি সূত্র জানিয়েছে, সিলেটের বিভাগীয় স্টেডিয়ামের সরকারি স্কুলের রাস্তা অতীতের মতো সেখানে মালনিছড়ার স্থানীয় এক নেতার সাথে মিলে কোররানীর পশুর হাট বসানোর জন্য পায়তারা করছেন। এছাড়াও সিলেট সদর উপজেলার টুকেরবাজার তেমুখি পয়েন্টের শরীফ কমিউনিটি সেন্টার সংলগ্ন মাঠ নেয়ার জন্য দৌড়ঝাপ শুরু করেছেন।

সৈয়দ আলতাফুর রহমান। সিলেটে বাবলুর আয়োজিত বিভিন্ন মেলায় তার সাথে সহযোগী হিসেবে ছিলেন এবং এখনও রয়েছেন। পশুর হাটের প্রকাশিত লিফলেটে তার নাম ও নম্বর দেয়া রয়েছে। ক্রেতা সেজে প্রতিবেদক তার সাথে যোগাযোগ করলে তিনি গরুর হাট বসানোর বিষয়টি এবং লিফলেট প্রকাশের কথা স্বীকার করেন। মঈন খান বাবলুর নামে বাজারের ইজারা পেয়েছেন বলেও উল্লেখ করেন। এবং ১০ জুলাইয়ের পরিবর্তে লকডাউনের জন্য ১৫ জুলাই থেকে বাজার শুরু করবেন বলে জানান। পরবর্তিতে সাংবাদিক পরিচয় দেওয়ার সাথে সাথেই কথার সুর পাল্টে যায়। বলেন এসব বিষয়ে এখনো কিছু ঠিক হয়নি।

বাজার ইজারার ব্যাপারে সিলেট সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী মহুয়া মমতাজ বলেন, সিলেট সদর উপজেলা থেকে কোরবানির পশুর হাট এখনো কাউকে ইজারা দেওয়া তো দূরের কথা, এখনো কোন স্থানই নির্ধারণ করা হয়নি। কয়েকটি স্থানের তালিকা করে জেলা প্রশাসনে পাঠানো হয়েছে। এখনো এ ব্যাপারে কোন সিদ্ধান্ত আসেনি জেলা প্রশাসন থেকে। এরই মধ্যে কেউ বাজার ইজারা পেয়েছেন বলে প্রচার করলে তা সম্পূর্ণ ‘ভুয়া’ বলে উল্লেখ করেন তিনি।

সিলেটে আলোচিত-সমালোচিত ও বির্তকিত মেলা ব্যবসায়ী এমএ মঈন খান বাবলু। নাম এমএ মঈন খান বাবলু হলেও সিলেটে সবাই তাকে মেলা বাবলু বলেই জানে। তার বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ এসেছে সিলেট লাইভ-এর কাছে।

 

 






© এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সর্বস্বত্ব SylhetLive24.Com কর্তৃক সংরক্ষিত ।

Design BY SYLHET-LIVE-24
ThemesBazar-Jowfhowo