মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ০৪:৩৩ অপরাহ্ন

সিলেটের গার্ডেন টাওয়ার কর্তৃপক্ষের গ্যাস জালিয়াতি, দুর্ভোগে বাসিন্দারা

সিলেটের গার্ডেন টাওয়ার কর্তৃপক্ষের গ্যাস জালিয়াতি, দুর্ভোগে বাসিন্দারা

sylhetlive24.com/সিলেট লাইভ


বিশেষ প্রতিবেদন

সিলেট নগরীর মেন্দিবাগ অবস্থিত গার্ডেন টাওয়ার কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে গ্যাস সংযোগে জালিয়াতির অভিযোগ উঠেছে। গত ১৪ জুলাই টাওয়ারের বৈধ-অবৈধ সব সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয় জালালাবাদ গ্যাস কারণ দীর্ঘদিন থেকে টাওয়ার কর্তৃপক্ষ ৮১টি অবৈধ গ্যাস সংযোগ ব্যবহার করে আসছেন। এই টাওয়ারটি সিলেটের অন্যতম বড় আবাসন প্রতিষ্ঠান দি ম্যান এন্ড কোম্পানি লিমিটেডের অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের মধ্যে একটি। টাওয়ারে প্রায় ৯০টির মতো ফ্ল্যাট রয়েছে। এছাড়া টাওয়ারের পাশেই ম্যান এন্ড কোম্পানির মালিকানাধীন গার্ডেন ইন হোটেল, রেস্টুরেন্টসহ একাধিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। এসব ফ্ল্যাট ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে বৈধ-অবৈধ গ্যাস ব্যবহৃত হতো। এদিকে গ্যাস বিচ্ছিন্ন করায় চরম দুর্ভোগে আছেন গার্ডেন টাওয়ারের বিভিন্ন ফ্ল্যাটের বাসিন্দারা। তাদের ঈদ কেটেছে গ্যাস ছাড়া!

 

গার্ডেন টাওয়ারের ফ্ল্যাটের মালিক ও বাসিন্দারা অভিযোগ করে বলেছেন,

তারা প্রতি মাসেই দি ম্যান এন্ড কোম্পানি কর্তৃপক্ষের কাছে গ্যাসের বিল পরিশোধ করেছেন। সব গ্যাস সংযোগই বৈধ বলে তাদেরকে জানানো হয়েছে। এরই মধ্যে হঠাৎ করে সব গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়ায় বিপাকে আছেন টাওয়ারের ফ্ল্যাটের মালিক ও বাসিন্দারা। দি ম্যান এন্ড কোম্পানি ও জালালাবাদ গ্যাস কর্তৃপক্ষের অনিয়ম, খামখেয়ালির ফল ভোগ করতে হচ্ছে তাদের।

গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ায় এসব ফ্ল্যাটের বাসিন্দারা কেউ কেউ সিলিন্ডার গ্যাস কিনে এনেছেন। রেস্টুরেন্ট থেকে খাবার কিনে আনছেন অনেকে। এবার ঈদও করতে হয়েছে এমন অবস্থায়। আবার শাটডাউনের কারণে দুর্ভোগতো আরও বেড়েছে।

 

জালালাবাদ গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন

সিস্টেম লিমিটেডের বিপনন বিভাগের উপমহাব্যবস্থাপক প্রকৌশলী খান মো. জাকির হোসাইন জানান, ‘ওই টাওয়ারে ১১২টি গ্যাস সংযোগের আবেদন করে ১৯৩টি সংযোগ ব্যবহার করা হচ্ছিল অবৈধভাবে ৮১টি সংযোগ ব্যবহার করায় আমরা সব সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছি।’

একটি সূত্র জানিয়েছে, ২০০৪ সালে নির্মিত হওয়ার পর থেকেই টাওয়ারে অবৈধভাবে অতিরিক্ত ৮১টি গ্যাস সংযোগ ব্যবহার করা হচ্ছে। তবে কোম্পানি সংশ্লিষ্টরা জালিয়াতির অভিযোগ অস্বীকার করে দাবি করছেন, তাদের সব সংযোগই বৈধ। টাওয়ারে শিগগিরই গ্যাস সংযোগ ফিরিয়ে আনতে চেষ্টা করা হচ্ছে।

আচমকা অবৈধ সংযোগ বলে গ্যাস বিচ্ছিন্ন করে দেয়ায় গার্ডেন টাওয়ারের ফ্ল্যাটের বাসিন্দারা জানিয়েছেন- তারা নিয়মিত গ্যাস বিল দিয়ে টাওয়ার কর্তৃপক্ষকে। যদি অবৈধ সংযোগই হয় তাহলে কোম্পানি তাদের কাছ থেকে এতোদিন বিল নিলো কেন?

 

ফ্লাটের বাসিন্দারা আরো জানিয়েছেন-

এই বিষয়টির পুরো ম্যান এন্ড কোম্পানি কর্তৃপক্ষের দায়। তারা গ্যাস সংযোগ এনেছেন। আমরা বিলও তাদের কাছে পরিশোধ করি। এখন তারা অবৈধভাবে সংযোগ এনেছেন, নাকি অন্য কোনো ঝামেলা হচ্ছে সেটি তারাই বুঝবেন। দ্রুত সংযোগ ফিরিয়ে দেয়ার জন্য আমরাও তাদের চাপ দিচ্ছি।

এ প্রসঙ্গে জালালাবাদ গ্যাসের কর্মকর্তা জাকির হোসাইন জানান- টাওয়ারের মালিক প্রতিষ্ঠান থেকে বৈধ সংযোগগুলো চালুর ব্যাপারে আবেদন করা হয়েছে। নির্ধারিত জরিমানা আদায় করে তাদের বৈধ ১১২টি সংযোগ আবার চালু করার বিষয়টি জালালবাদ গ্যাসের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের বিবেচনাধীন রয়েছে।

প্রতিবেদক এই ব্যাপার নিয়ে দি ম্যান এন্ড কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফারুক আহমদ মিসবাহ মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।






© এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সর্বস্বত্ব SylhetLive24.Com কর্তৃক সংরক্ষিত ।

Design BY SYLHET-LIVE-24
ThemesBazar-Jowfhowo