শনিবার, ২০ অগাস্ট ২০২২, ০৫:১২ পূর্বাহ্ন

ফয়জুল মুক্ত জাফলং না হলে আন্দোলনের হুমকি

ফয়জুল মুক্ত জাফলং না হলে আন্দোলনের হুমকি

sylhetlive24.com


নিজস্ব প্রতিবেদক

জাফলংয়ে মুক্তিযোদ্ধা সন্তান আলীম উদ্দিনের মুক্তির দাবিতে আয়োজিত মানববন্ধন শেষে সমাবেশে এলাকার লোকজন জানিয়েছেন- বহিরাগত সন্ত্রাসী ও কুখ্যাত পাথরখেকো ফয়জুল মুক্ত জাফলং না হলে কঠোর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে। ফয়জুলের কারনেই জাফলংয়ে আজ ঘরে ঘরে অশান্তি। সে বহিরাগত হয়েও জাফলংয়ের বালু ও পাথর লুট করে কোটি কোটি টাকার মালিক হয়েছে। এখন জাফলং অবস্থান গড়তে সে বাইরের সন্ত্রাসী নিয়ে মহড়া দিচ্ছে। তার কারনেই শান্ত জাফলং অশান্ত হয়ে উঠেছে।

গতকাল রোববার দুপুরে জাফলংয়ের রাধানগর অংশে আয়োজিত মানববন্ধন শেষে সমাবেশে বক্তারা এ কথা বলেন।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন- ইমরান হোসেন সুমন ওরফে জামাই সুমন ও ফয়জুল গত ৪ মাসে জাফলংয়ে পরিবেশ সঙ্কটাপন্ন এলাকা বা ইসিএ জোন থেকে প্রায় ২০ কোটি টাকা পাথর লুট করেছে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে বালু লুটপাটে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহন করায় এখন তারা এলাকায় লাঠিসোটা নিয়ে মহড়া দিচ্ছে। তাদের মহড়ার কারনে জাফলংয়ে ভীতিকর পরিবেশ বিরাজ করছে। এজন্য গোয়াইনঘাটের ওসি পরিমল দেব সহ সংশ্লিষ্টদের কার্যকর ভূমিকা গ্রহনের আহবান জানানো হয়।

নয়াবস্তি গ্রামের বাসিন্দা বীর মুক্তিযোদ্ধা ইনসান আলীর সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন- নয়াবস্তি গ্রামের আব্দুল মান্নান, শাহীন আহমদ, কামরুল ইসলাম, সেলিম আহমদ, সাদেক আলী, কামাল আহমদ, সুজন, স্বপন, নিজাম উদ্দিন, আব্দুন নূর, গিয়াস উদ্দিন, খলিল আহমদ, ইউনূস আহমদ, সুমন আহমদ ।

এদিকে, গোয়াইনঘাট উপজেলার জাফলংয়ে মানববন্ধন থেকে ফেরার পথে জাফলং সেতু সংলগ্ন জাফলং চা-বাগান এলাকায় সাধারণ পাথর শ্রমিকদের হামলা করে ফয়জুলের অনুসারীরা। তবে পুলিশের হস্তক্ষেপে বড় ধরণের কোনো অপ্রিতিকর ঘটনা ঘটেনি।

পুলিশ জানিয়েছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে বর্তমানে ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে ।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গতকাল রোববার বেলা ১১ টার দিকে স্থানীয় আলিম উদ্দিন গ্রুপের লোকজন তার মুক্তির দাবীতে জাফলং সেতু এলাকায় মানববন্ধন করতে যায়। ডাউকি নদীর আধিপত্য নিয়েপূর্ব বিরোধ থাকায় মানববন্ধনে বক্তারা প্রতিপক্ষ গ্রুপের ফয়জুলের নামে মন্তব্য এবং শ্লোগান দিতে থাকে। মানববন্ধনের কটুক্তি শোনে ফয়জুলের লোকজন পরে মানববন্ধন করে ফেরার পথে সংঘর্ষ ঘটে। সংঘর্ষ চলাকালীন সময় বেশ কয়েকটি মোটরসাইকেলও ভাংচুর হয়।

খবর পেয়ে গোয়াইনঘাট থানার ওসি পরিমল চন্দ্র দেব ও থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. ওমর ফারুক বিপুল সংখ্যক পুলিশ নিয়ে ঘটনা স্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

এ বিষয়ে গোয়াইনঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পরিমল চন্দ্র দেব জানান, জাফলংয়ে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্রকরে দু’ পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় পরিস্থিতি শান্ত করে। যে কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে সেখানে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে ।






© এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সর্বস্বত্ব SylhetLive24.Com কর্তৃক সংরক্ষিত ।

Design BY SYLHET-LIVE-24
ThemesBazar-Jowfhowo