শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১১:১৪ অপরাহ্ন

জৈন্তাপুরে পুকুর থেকে ধর্ষিতার লাশ উদ্ধার

জৈন্তাপুরে পুকুর থেকে ধর্ষিতার লাশ উদ্ধার

sylhetlive24.com/সিলেট লাইভ


জৈন্তাপুর প্রতিনিধি

জৈন্তাপুর উপজেলার ফতেপুর (হরিপুর) ইউনিয়নের হেমু হাউদ পাড়া এলাকার জালাল মিয়ার পুকুর থেকে এক মহিলার লাশ উদ্ধার করেছে জৈন্তাপুর মডেল থানা পুলিশ। বুধবার বিকাল সাড়ে ৪ টার দিকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

নিহত মহিলা উপজেলার হেমু হাউদ পাড়া গ্রামের মৃত ইমাম উদ্দিনের স্ত্রী সোনাবান বিবি (৬৫)। গত মঙ্গলবার রাত থেকে তিনি নিখোঁজ ছিলেন।

পরিবারের দাবি, পূর্ব বিরোধের জের ধরে তাঁকে মেরে পুকুরে ফেলে দিয়েছে। পুলিশের ধারণা, মহিলা (স্মৃতি বম) বা মানসিক ভাবে ভেঙ্গে পড়ার কারণে সোনাবান বিবি অসাবধানতাবশত পুকুরে পড়ে মারা যেতে পারেন।

পুলিশ ও নিহত সোনাবান বিবির স্বজন সূত্রে জানা গেছে, গত মঙ্গলবার রাতে তিনি বাড়ি থেকে বের হন। এরপর থেকে তিনি নিখোঁজ ছিলেন। পরিবারের সদস্যরা তাঁকে বিভিন্ন জায়গায় খুঁজেও সন্ধান পাননি। বুধবার বিকাল সাড়ে ৪ টার স্থানীয় লোকজন জালাল মিয়ার পুকুরে লাশ ভাসতে দেখে।

পরে পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সিলেট এমএজি ওসমানি মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

একটি সূত্র জানিয়েছে, গত রমজান মাসে সুনাবান বিবি হাওরে ছাগল চরাতে গেলে একটি চক্র জোর পূর্বক তাকে তুলে নিয়ে যায়। তিন দিন হাওরে আটক রেখে থাকে পাশ্ববিক নির্যাতন করে- একটি অভিযোগ জৈন্তাপুর মডেল থানায় তিনি ইতিপূর্বে দায়ের করেছিলেন ।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে অনেকেই জানান, থানায় অভিযোগের পর হতে মামলা তুলে নেওয়ার জন্য বৃদ্ধাকে নানা রকম হুমকি দেয়া হয়েছিলো।

জৈন্তাপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম দস্তগির আহমদ জানান, এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা করার প্রস্তুতি চলছে। প্রাথমিক সুরতহালে শরীরের কোথাও আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি।

লাশটি পুকুরের পানিতে থাকয় তার পেঠে প্রচুর পানি ও শরীরে কাঁদা মাখা ছিলো। ময়না তদন্ত প্রতিবেদনের পর মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যাবে।

তিনি আরোও জানান, ২ মাস পূর্বে তিনি জৈন্তাপুর মডেল থানায় একটি ধর্ষণ মামলা করেছিলেন।






© এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সর্বস্বত্ব SylhetLive24.Com কর্তৃক সংরক্ষিত ।

Design BY SYLHET-LIVE-24
ThemesBazar-Jowfhowo