সোমবার, ১৬ মে ২০২২, ০৫:০৯ অপরাহ্ন

চার নেতায় সিলেট যুবলীগ, পূর্ণাঙ্গ কমিটি বিহীন দুই বছর

চার নেতায় সিলেট যুবলীগ, পূর্ণাঙ্গ কমিটি বিহীন দুই বছর

sylhetlive24.com


বিশেষ প্রতিবেদক :: সিলেটে যুবলীগ নেতা জাকিরুল আলম জাকিরকে গ্রেফতারের একদিন পর সিলেট মহানগর যুবলীগের সভাপতি আলম খান মুক্তি ও সাধারণ সম্পাদক মুশফিক জায়গীদার স্বাক্ষরিত এ প্রেস বিজ্ঞপ্তিকে ইস্যু করে তোলপাড় চলছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে। অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনায় কেউ গ্রেফতার হলে তাকে যুবলীগের কর্মী বা নেতা পরিচয় দিতে অস্বিকার করছে কমিটির শীর্ষ নেতারা! ঠিক এমন সময় টনক নড়েছে তৃণমূল নেতা-কর্মীদের। এ নিয়ে চলছে লেখা-লেখি। তিন বছর মেয়াদের কমিটি দুই বছর অতিবাহিত হচ্ছে, যুবলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি হবে কবে?

এদিকে কমিটি গঠনের পর থেকে চার নেতায় চলছে সিলেট জেলা ও মহানগর যুবলীগের সাংগঠনিক কার্যক্রম। প্রায় দুই বছর পার হলেও পূর্ণাঙ্গ কমিটি না হওয়ায় বেরিয়ে আসছে না আর কোনো নতুন মুখ; এমন দাবিও তৃণমূল নেতা-কর্মীদের। তিন বছর মেয়াদের কমিটি দুই বছর অতিবাহিত হচ্ছে এখনও পূর্ণাঙ্গ করতে পারেননি তারা!

২০১৯ সালের জুলাই মাসে সম্মেলনের মাধ্যমে সিলেট জেলা ও মহানগর যুবলীগের কমিটি গঠন করা হয়। সেই সময়ে যুবলীগের চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরীর উপস্থিতিতে সম্মেলনে সিলেট জেলা যুবলীগে শামীম আহমদ (ভিপি শামীম) সভাপতি ও শামীম আহমদ সাধারণ সম্পাদক এবং মহানগর যুবলীগে আলম খান মুক্তি সভাপতি ও মুশফিক জায়গীরদার সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। কিন্তু প্রায় দুই বছর পার হলেও পূর্ণাঙ্গ কমিটি উপহার দিতে পারেন নি এ দুই ইউনিটের দায়িত্বশীলরা। এতে করে চার নেতায় আটকে আছে সিলেট জেলা ও মহানগর যুবলীগের সাংগঠনিক কার্যক্রম। এতে পদ-পদবী প্রত্যাশীদের অপেক্ষা বাড়ছে।

এছাড়া গুরুত্বপূর্ণ এই দুই ইউনিটে পূর্ণাঙ্গ কমিটি না থাকায় সাংগঠনিক কার্যক্রমে দেখা দিয়েছে স্থবিরতা, এমন অভিযোগও তৃণমূলের।

সিলেট যুবলীগের একটি সূত্র জানায়- সিলেট মহানগর যুবলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় ২০১৯ সালের ২৭ জুলাই আর ২৯ জুলাই হয় সিলেট জেলা যুবলীগের সম্মেলন। এর আগে ২০০৩ সালে জেলা যুবলীগে এবং ২০০৪ সালে মহানগর যুবলীগে সম্মেলন হয়েছিল। তবে ওই সময় নেতৃত্ব নির্ধারণে ভোট হয়নি। সিলেট যুবলীগে ভোটের মাধ্যমে নেতৃত্ব বাছাই করা হয় ১৯৯২ সালে। এরপর ২০১৯ সালের জুলাই মাসে সিলেট জেলা ও মহানগর যুবলীগের সম্মেলনে কাউন্সিলররা ভোট দেয়ার সুযোগ পান। সেই সময়ে যুবলীগের চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরীর উপস্থিতিতে সম্মেলনে সিলেট জেলা যুবলীগে শামীম আহমদ (ভিপি শামীম) সভাপতি ও শামীম আহমদ সাধারণ সম্পাদক এবং মহানগর যুবলীগে আলম খান মুক্তি সভাপতি ও মুশফিক জায়গীরদার সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। এ চার নেতার তিনজনই আগে থেকে শীর্ষ নেতৃত্বে ছিলেন। সিলেট জেলা যুবলীগে ভিপি শামীম আগের কমিটিরও সভাপতি ছিলেন। মহানগর যুবলীগে সর্বশেষ কমিটির আহবায়ক ছিলেন আলম খান মুক্তি, যুগ্ম আহবায়ক ছিলেন মুশফিক জায়গীরদার।

প্রায় দুই বছর পার হয়ে গেলেও পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনে নেই দায়িত্বশীলদের কোনো তোড়জোড়! তারা এ ব্যাপারে উদাসীন; এমন অভিযোগ উঠতে শুরু করেছে সেই তৃণমূল থেকে।

পদ প্রত্যাশীরা বলছেন, দীর্ঘদিন ধরে পূর্ণাঙ্গ কমিটি না হওয়ায় নেতা-কর্মীরা ঝিমিয়ে পড়ছেন। এছাড়া দীর্ঘদিন থেকে কমিটি না হওয়ায় নেতাকর্মীরা হতাশ হয়ে পড়েছেন।






© এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সর্বস্বত্ব SylhetLive24.Com কর্তৃক সংরক্ষিত ।

Design BY Web-NEST- BD
ThemesBazar-Jowfhowo