শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ০৮:১৭ পূর্বাহ্ন

সরকারি নির্দেশনা :
করোনা ভাইরাস সংক্রমন রোধে মাস্ক পরুন, নিরাপদ থাকুন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন। নিজে বাঁচুন এবং পরিবারকে সুস্থ রাখুন। সৌজন্যে : SylhetLive24.com
আজকের গুরুত্বপূর্ণ যত খবর
জকিগঞ্জে চলছে মাইকিং : ঢুকছে পানি, ভাঙলো ৩ নদীর মোহনার ডাইক মাধবপুরে যৌতুক না পেয়ে স্ত্রীর গালে ছ্যাঁকা! ছাত্রদল নেতা রুবেল ও রাসেলের জামিন লাভ, কারা ফটকে সংবর্ধনা বজ্রপাতে তিন শিশুর মৃত্যু শিশু অধিকার বাস্তবায়ন সম্পর্কিত জবাবদিহিতা বিষয়ক সংলাপ সিলেটে বন্যার্তদের মধ্যে শুকনো খাবার বিতরণ করলেন জেবুল সরকারের পাশাপাশি ব্যক্তি উদ্যোগে বন্যার্ত মানুষের পাশে দাঁড়াতে হবে : ডা. শিপলু জগন্নাথপুরে মসজিদ নির্মাণের নামে সরকারি স্কুলের জমি দখল সিলেট সদর উপজেলা যুবদল থেকে ডালিম বহিস্কার সিলেটে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা স্থগিত বিশ্বনাথে ধর্ষকের হুমকি, অসহায় মা-মেয়ে উপশহরে পানিবন্দি মানুষের পাশে দিদার রুবেল অ্যাড. জামানের মায়ের সুস্থতা কামনায় দোয়া মাহফিল সিলেটে বন্যার্তদের পাশে মহানগর আ. লীগের সহ সভাপতি আসাদ উদ্দিন সিলেট নগরী রক্ষার্থে ‘শহর রক্ষা বাঁধ’ নির্মাণ প্রয়োজন : মহানগর বিএনপি সিলেটের বানভাসী মানুষদের পর্যাপ্ত ত্রাণ দেওয়ার দাবি বাসদের কাউন্সিলর পদপ্রার্থী রুবি আলমের উদ্যোগে খাদ্য বিতরণ সিলেটে জামায়াত-শিবিরের ২১ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে পুলিশ অ্যাসল্ট মামলা ছাত্রদল নেতা রুবেল ও রাসেলের গ্রেফতারে কয়েছ লোদীর নিন্দা দেশের মানুষ সরকারের পাশে, ষড়যন্ত্রকারীদের স্বপ্ন কোনোদিন পূরণ হবে না : পররাষ্ট্রমন্ত্রী
গোয়াইনঘাটে ভাতিজাদের হামলায় চাচা নিহত

গোয়াইনঘাটে ভাতিজাদের হামলায় চাচা নিহত

sylhetlive24.com


গোয়াইনঘাট প্রতিনিধি :: গোয়াইনঘাটে ভাতিজাদের হামলায় মোহাম্মদ আলী (৭৫) নামের এক বৃদ্ধ নিহত হয়েছেন। নিহত মোহাম্মদ আলী উপজেলার ফতেহপুর ইউনিয়নের গুলনী গ্রামের মৃত মুজম্মিল আলীর ছেলে। মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) সন্ধ্যায় সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

জানা যায়, গত ৭-৮ বছর আগে মোহাম্মদ আলীর সহোদর মৃত ফয়জুর রহমানের ছেলে মিছবাহ উদ্দিনের সাথে আরেক সহোদর তারা মিয়ার মেয়ে নিলুফা বেগমের বিয়ে হয়। সম্প্রতি তাদের দাম্পত্য জীবনে কলহ দেখা দেয় এবং বেশ কয়েকদিন ধরে নিলুফা তার বাবার বাড়িতে চলে আসে।

এরই মাঝে গত সোমবার (১৯ এপ্রিল) রাত ৮টার দিকে নিলুফার স্বামী মিজবাহ ও দেবর তাজিল এবং তাদের চাচাতো ভাই আজিজুর রহমানের ছেলে ইসমাইল ও সেলিম মিলে নিলুফাকে নিতে তাদের বাড়িতে যায়। তখন নিলুফা স্বামী মিজবাহ’র সাথে আর সংসার করবেনা বলে জানিয়ে দেয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে মিজবাহ ও তার সহযোগীরা নিলুফাকে জোরপূর্বক নিয়ে যেতে চাইলে নিলুফার বাবা তারা মিয়াসহ পরিবারের লোকজন তাদের বাঁধা দেন।

এ সময় মিজবাহ ও তার সহযোগীরা নিলুফার অভিভাবকদের মারধর করে। ঘটনার খবর পেয়ে তারা মিয়ার বড় ভাই মোহাম্মদ আলী সেখানে গেলে ভাতিজা মিজবাহ উদ্দিনরা তাকেও মারধর করে।

পরে স্থানীয়রা মোহাম্মদ আলীকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার সন্ধ্যায় মোহাম্মদ আলী মারা যান।

এ ঘটনায় মোহাম্মদ আলীর ছেলে বিলাল আহমদও গুরুতর আহত হয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এ ব্যাপারে গোয়াইনঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আব্দুল আহাদ জানান, বিষয়টি আমরা শুনেছি। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। ঘটনায় জড়িতদের যত দ্রুত সম্ভব আটক করে আইনের আওতায় নিয়ে আস হবে।






© এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সর্বস্বত্ব SylhetLive24.Com কর্তৃক সংরক্ষিত ।

Design BY Web-NEST- BD
ThemesBazar-Jowfhowo